গরমে চুলের যত্ন| চিটচিটে ভাব ও চুলকানি দূর করবেন যেভাবে

নতুন টিপস ও লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক করুন|

গরমে চুলের যত্ন

গরমে মাথার ত্বক ও চুল বেশি নোংরা হয়ে যায়। মাথা ঘেমে চুলে চিটচিটে ভাব হয়। মাথার ত্বকে ময়লা জমতে শুরু করে। এ কারণে চুলকানি ও র্যাশ হয় স্ক্যাল্পে। তবে ঘরোয়া উপায়েই এ সমস্যা থেকে নিস্তার পেতে পারেন। এজন্য যা করণীয়-

  1. এক কাপ পানিতে ১-২ চামচ আপেল সিডার ভিনেগার মিশিয়ে মাথার ত্বকে ব্যবহার করুন। এটি ১০ মিনিটের জন্য রেখে দিন এবং ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দু’বার ব্যবহার করলেই মাথার চিটচিটেভাব ও চুলকানি কমে যাবে। আপেল সিডার ভিনেগারে অ্যান্টি-ফাঙ্গাল বৈশিষ্ট্য আছে। এ কারণে মাথার ত্বকে চুলকানি কমায়।
  2. নারকেল তেল মাথার চিটচিতেভাব দূর করে। আলতো করে তেল ম্যাসাজ করুন। ২০-৩০ মিনিট বা সারারাতা রেখে চুল ধুয়ে ফেলুন। শ্যাম্পু করার আগে সপ্তাহে অন্তত একবার নারকেল তেল ব্যবহার করুন। নারকেল তেল একটি ভালো ময়েশ্চারাইজার হিসেবে কাজ করে। এতে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল এবং ইমোলিয়েন্ট বৈশিষ্ট্য আছে। যা মাথার উকুনও দূর করে।
  3.  টি ট্রি অয়েল ব্যবহার করতে পারেন। ৫-১০ ফোঁটা টি ট্রি অয়েল সরাসরি মাথার ত্বকে লাগান। কয়েক মিনিট ম্যাসেজ করুন। এটি রাতারাতি স্ক্যাল্পের চিটচিটে ভাব ও চুলকানি কমাবে। এটি সপ্তাহে দু’বার বা তিনবার ব্যবহার করুন। এই তেলে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি-ফাঙ্গাল বৈশিষ্ট্য আছে। যা চুলকানি কমায় এবং স্ক্যাল্পের আর্দ্রতা বজায় রাখে।
  4.  বেকিং সোডা ব্যবহার করেও স্ক্যাল্পের বিভিন্ন প্রদাহ সারিয়ে তোলা যায়। এজন্য ২-৩ টেবিল চামচ বেকিং সোডা ও পানি মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এই পেস্ট মাথার ত্বকে ব্যবহার করে ১০-১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। প্রতি দুই সপ্তাহে একবার ব্যবহার করুন এটি। বেকিং সোডায় অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি-ফাঙ্গাল বৈশিষ্ট্য আছে। এটি স্ক্যাল্পের ক্ষতিকারক জীবাণু ধ্বংস করে, যা সংক্রমণ, চুলকানি এবং চুল পড়ার কারণ।
  5. অ্যালোভেরা জেল সরাসরি মাথার ত্বকে লাগান।১৫-২০ মিনিট মাথায় রেখে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে একবার বা দুইবার ব্যবহার করুন অ্যালোভেরা জেল। এটি প্রাকৃতিক ময়েশ্চারাইজার, যা মাথার ত্বকের চুলকানি কমায়। এর অ্যান্টি-মাইক্রোবিয়াল বৈশিষ্ট্য খুশকি কমাতেও সহায়তা করে।
  6. এক কাপ পানি ২-৩ টেবিল চামচ লেবুর রস মিশিয়ে মাথার তালুতে তুলোর সাহায্যে ব্যবহার করুন। ৫-১০ মিনিট ব্যবহার করে চুল ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে অন্তত একবার ব্যবহার করুন। লেবুর রসে ফাইটোকেমিক্যালস থাকে, যাতে প্রাকৃতিক অ্যান্টি-মাইক্রোবিয়াল বৈশিষ্ট্য আছে। এই ফাইটোকেমিক্যালস স্ক্যাল্পের প্রদাহ দূর করে।
See also  তৈলাক্ত ত্বক মন্দ নয়, তৈলাক্ত ত্বকের উপকারিতা

মাথার ত্বকের চিটচিটে ও চুলকানি কমাতে আরও যা করবেন-

  • খুশকি, উকুন এবং অন্যান্য মাথার ত্বকের সংক্রমণের চিকিৎসা করুন।
  • মাথার ত্বক আর্দ্র রাখুন, যাতে এটি শুকনো বা আঁঠালো না থাকে। হাইড্রেটিং শ্যাম্পু ব্যবহার করুন এবং আর্দ্রতা পুনরুদ্ধারের জন্য আপনার মাথার ত্বকে তেল (জোজোবা, অর্গান, জলপাই বা নারকেল) দিয়ে ম্যাসেজ করুন।
  • নখ দিয়ে মাথা জোরে চুলকাবেন না। গরম ঝরনাও এড়িয়ে চলুন।
  • চুলে রং, সুগন্ধি এবং রাসায়নিক প্রসাধনী ব্যবহারে অ্যালার্জি হতে পারে। তাই ব্যবহারের আগে প্যাচ পরীক্ষা করুন।
  • বাইরে বের হওয়ার সময় মাথায় টুপি বা হিজাব ব্যবহার করুন।
  • সপ্তাহে একবার বিছানা এবং বালিশের কাভার পরিবর্তন করুন।
  • নিয়মিত চুলের যত্ন নিতে হবে। উপরের বিভিন্ন হেয়ার মাস্ক ও তেল ব্যবহার করুন।
  • মানসিক চাপ ও উদ্বেগমুক্ত জীবনযাপন করুন। হাইড্রেটেড থাকুন, আয়রন, জিঙ্ক এবং প্রোটিন সমৃদ্ধ সুষম খাবার খান।
  • প্রতি রাতে ৭-৮ ঘণ্টা ঘুমান।
  • যোগা এবং ধ্যানসহ নিয়মিত অনুশীলন করুন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*