| |

কোনোটাতেই অন্যায় করি নাই সবেতেই বেকসুর খালাস হব জানান অনুব্রত মণ্ডল

কোনোটাতেই অন্যায় করি নাই সবেতেই বেকসুর খালাস হব জানান অনুব্রত মণ্ডল

শুক্রবার  মঙ্গলকোট বিস্ফোরণ মামলায় অনুব্রত মণ্ডল জানালেন বেকসুর খালাস পেয়ে যাব। তিনি আরো জানান কোথাও কোনো অন্যায় করিনি। অনুব্রত মন্ডল বলেন “ একটাই কথা বলি আমি কোনো অন্যায় করি নাই”। 

ভোট পরবর্তী হিংসা কিংবা গরু পাচার মামলায়।সবকিছু মামলায় তিনি বেকসুর খালাস পাবেন। শুক্রবারেই বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন বীরভূমের তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডল। এই গরু পাচার মামলায় অনুব্রত মণ্ডলের কিছুটা পরিবর্তন দেখা দিয়েছে। এখন চুলে কলপ করতে পারেনা। সব চুল দাড়ি পেকে সাদা হয়ে গেছে।এছাড়া তিনি  ঠিক মতন কথা বলতেপারছে না কারণ তার শ্বাসের  সমস্যা দেখা দিচ্ছে। 

তবে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর পাশে এসে দাঁড়িয়ে থাকার বার্তায় তিনি কিছুটা স্বস্তি পেয়েছেন বীরভূমের রুদ্রপ্রতাপ নেতা। মঙ্গলবার তার বিস্ফোরক মন্তব্য তিনি কোন অন্যায় করেনি তিনি বেকসুর খালাস পাবেন।  

অনুব্রত মণ্ডল এর বক্তব্য “ একটাই কথা বলি আমি কোনো অন্যায় করি নাই আজ বেকসুর খালাস হলাম সবেতেই বেকসুর খালাস হব” এবং তিনি আরো জানান গরু পাচার মামলাতেও আমি খালাস পাবো। অনুব্রত মণ্ডল কে প্রশ্ন করতেই তিনি জানিয়ে দেয়, সবেতেই নির্দোষ প্রমাণিত হবেন তিনি।  

মঙ্গলকোট বিস্ফোরণ মামলায় 12 বছরের পুরনো এই কেস থেকে মুক্তি পেলেন অনুব্রত মণ্ডল। তাকে মুক্তি দিয়েছে বিধাননগরের এমপি- এমএলএ আদালত। এই মঙ্গলকোট বিস্ফোরক মামলায় অনুব্রতর সঙ্গে অভিযুক্ত আরো 14 জনকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়।  

আজ থেকে প্রায় 12 বছর আগে 2010 সালে বর্ধমান জেলা মঙ্গলকোট থানা এলাকায় মল্লিকপুর একটি বিস্ফোরক ঘটনায় কতজন গুরুতর আহত হয়। এই ঘটনা ঘটে রাজনৈতিক শত্রুতার কারণে বলে জানা যায়। এই মামলায় অভিযান চালিয়ে কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়। এদের মধ্যে ছিল এই বীরভূমের বিধায়ক অনুব্রত মণ্ডল এবং কেতুগ্রামের তৃণমূল বিধায়ক শেখ শাহনওয়াজ।এছাড়াও আরো 15 জন এই মামলার সঙ্গে যুক্ত ছিল। 

এই মামলায় বিধান নগর এমপি- এমএলএ আদালত থেকে আসানসোলের সংসদ থেকে কলকাতায় আনা হলে অনুব্রত মণ্ডল কে। সংশোধনাগার থেকে আনার সময় থেকে দেখা যায় তিনি বেশ ফুরফুরে মেজাজে আছেন। অনুব্রত মণ্ডল তার আগের ভঙ্গিমায় জানায় “জেলে কন্টিনিউ কেউ থাকেনা, ছাড় পায়। নিশ্চয়ই ছাড়া পাব, ছাড়া পেলে যাব”। এ আর বলার কি আছে। গরু পাচার মামলায় সিবিআইয়ের হাতে গ্রেফতার হওয়া তৃণমূল নেতা বলেন “জেলে তো কেউ সারা জীবন থাকে না”।  ।


প্রতিবেদন   

 এই প্রতিবেদনটা যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই এই প্রতিবেদনটি কি শেয়ার করবেন। এবং এই রকম আরো নিত্য নতুন খবরের  আপডেট পেতে আমাদের ওয়েবসাইটের সঙ্গে যুক্ত থাকুন ।  এবং যে কোনো সোশ্যাল  মিডিয়ায় এই প্রতিবেদনটি শেয়ার করুন। ধন্যবাদ প্রতিবেদনটি পড়ার জন্য। 

 

 

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published.