|

রাজু শ্রীবাস্তব এর পাঁচটি সুপার হিট সিনেমার নাম

রাজু শ্রীবাস্তব

আমরা সবাই রাজু শ্রীবাস্তব কে চিনি কৌতুক শিল্পী হিসেবে. শুধু আমরা নয় গোটা দেশ তাকে এই কৌতুক শিল্পী হিসেবেই  জানে. তিনি আর আমাদের মধ্যে নেই তিনি 59 বছর বয়সে আমাদের ছেড়ে চলে গেছেন. কিন্তু রয়ে যাবে তার সেই কাজগুলো. রাজু শ্রীবাস্তব এর সুপারহিট পাঁচটি সিনেমাও রয়েছে. 

রাজু শ্রীবাস্তব আমাদের কাছে কৌতুহলী শিল্পী হিসেবেই বেশি খ্যাত. তিনি সারা জীবন সবাইকে  হাসিয়েছেন. তার কথা বলার ধরণ তার বুদ্ধি ও তার কৌতুকের মেলবন্ধন সমস্ত মানুষকে হাসিয়েছেন. এই হাসির মধ্য দিয়ে কত মানুষের দুঃখ ভুলিয়ে দিয়েছে. তার কথা বলার ধরণ দেখে কোন মানুষের হাসি থামতেই না.

রাজু শ্রীবাস্তব সারা জীবন ধরে শুধু মানুষকে হাসিয়েছেন. অথচ  আজ আর সেই মানুষটা নেই তিনি চলে গেছেন চিরতরে. ওই মানুষটা না থাকলেও উনার কাজ থাকবে সবার হৃদয়ে. তিনি যে শুধু stand-up কমেডি করতেন তা নয় এই মধ্যবিত্ত পরিবারের সাধারণ ছেলেটির অনেক কালজয়ী সিনেমা উপহার দিয়েছেন.  

রাজু শ্রীবাস্তব প্রথম জীবনের অভিনয় জগতে আসেন 1988 সালে ‘তেজাব’ সিনেমায়.এরপরে রাজু শ্রীবাস্তব কে দেখা গিয়েছিল ভারতীয় বক্স অফিসে এক সারা জাগানো গান ‘এক দো তিন’ এই গানের সিনেমা রাজু শ্রীবাস্তব অভিনয় করেছেন.এইসব সিনেমায় তাকে দেখা গেলেও সেভাবে তিমি নজরে পড়েননি. 

এরপর রাজু শ্রীবাস্তব কে দেখা যায় ‘ম্যায়নে পেয়ার কিয়া’ এই সিনেমাতে.এরপর রাজু শ্রীবাস্তব 1989 সালে সালমান খানের সিনেমা দিয়ে চলচ্চিত্র জগতে আবার পা রাখেন.ওই সিনেমাতে রাজু শ্রীবাস্তব এক ট্রাকের খালাসের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন.  ওই সিনেমায় রাজু শ্রীবাস্তব এর নাম ছিল শম্ভু. 

এরপর 1993 সালে শাহরুখ খানের ‘বাজিগর’ সিনেমার অভিনয় করে তিনি. এই সিনেমাতে রাজু শ্রীবাস্তব  এক কলেজ পড়ুয়া চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন. 

‘বাজিগর’ সিনেমার পর তিনি অনেক দিন ধরে আর কোন কাজ করেননি. ফের 2001 সালে রাজু শ্রীবাস্তব কে আবার সিনেমার পর্দায় দেখা যায়. গোবিন্দ ও জুহি চাওলা অভিনীত ‘আমদানি আঠানি খরচা রুপাইয়া’ এই সিনেমাতে. এই সিনেমা রাজু শ্রীবাস্তব কে বাবা চিনচিন চু-র চরিত্রে দেখা যায় . 

প্রতিবেদন   

এই প্রতিবেদনটা যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই এই প্রতিবেদনটি কি শেয়ার করবেন। এবং এই রকম আরো নিত্য নতুন খবরের  আপডেট পেতে আমাদের ওয়েবসাইটের সঙ্গে যুক্ত থাকুন ।  এবং যে কোনো সোশ্যাল  মিডিয়ায় এই প্রতিবেদনটি শেয়ার করুন। ধন্যবাদ প্রতিবেদনটি পড়ার জন্য।  

 

 

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published.